তথ্যপ্রযুক্তি

জেনে নিন ইউটিউব নিয়ে অদ্ভুত মজার ২৫ তথ্য

ইউটিউব

নিঃসন্দেহে বর্তমান বিশ্বের সবচেয়ে জনপ্রিয় ভিডিও শেয়ারিং ওয়েবসাইট ইউটিউব। অনেকের কাছে অনলাইনে বিনোদনের প্লাটফর্মও ইউটিউব। চলতি সময়ে এই ভিডিও ভিত্তিক ওয়েবসাইটের জনপ্রিয়তা এতোই তুঙ্গে যে, নিজের অজান্তেই ঘন্টার পর ঘন্টা ভিডিও দেখে ইউটিউবে সময় ব্যয় করছে ব্যবহারকারীরা। তাই ভাললাগার এই প্লাটফর্ম সম্পর্কে কৌতুহলেরও শেষ নেই আমাদের। আর তাই আজকের পোস্টে থাকছে ইউটিউব নিয়ে অদ্ভুত সব মজার তথ্য সম্ভারঃ

জানা-অজানার ইউটিউব (২৫টি অদ্ভুত মজার তথ্য)

  1. পেপালের সাবেক ৩ কর্মী বানিয়েছিলেন ইউটিউব।
  2. ইউটিউব যাত্রা শুরু করে ২০০৫ সালের ভ্যালেন্টাইন ডে -তে! (ইউটিউব প্রতিষ্ঠাঃ ১৪ ফেব্রুয়ারি, ২০০৫)
  3. পেপালকে যখন ই-কমার্স প্রতিষ্ঠান eBay কিনে নিয়েছিল। তখন পেপাল কর্মীদেরা কিছু আর্থিক বোনাস পেয়েছিল। আর পেপালের সাবেক ৩ কর্মী অর্থাৎ ইউটিউবের প্রতিষ্ঠাতারা সেই বোনাসকেই ইউটিউব শুরুর মূল্ধন হিসেবে কাজে লাগিয়েছিলেন।
  4. বর্তমানে ইউটিউব ভিডিও শেয়ারিং ওয়েবসাইট হিসেবে পরিচিত হলেও এর যাত্রা শুরু হয়েছিল ভিডিও ডেটিং সাইট হিসেবে। প্রথমে এর নাম ছিল “টিউন ইন হুক আপ”।
  5. প্রতিষ্ঠার মাত্র ১৮ মাস পরেই ইউটিউবকে ১.৬৫ বিলিয়ন ডলারে কিনে নেয় গুগল।
  6. ইউটিউবের আছে ১ বিলিয়নের বেশি নিবন্ধিত ব্যবহারকারী। যা সারাবিশ্বের ইন্টারনেট ব্যবহারকারীদের এক তৃতীয়াংশের সমান।
  7. আপনার ইউটিউব চ্যানেলে যদি থাকে দশ হাজারের বেশী সাবস্ক্রাইবার। তবে আপনার জন্য রয়েছে ইউটিউবের বিনামূল্যে ব্যবহারযোগ্য একটি শ্যুটিং স্টুডিও। যেটি মূলত লস এঞ্জেলসে অবস্থিত।
  8. প্রতি মিনিটে ইউটিউবে যে পরিমান ভিডিও আপলোড করা হয় সেগুলোর সর্বমোট ব্যাপ্তিকাল ১০০ ঘন্টার বেশি।
  9. ২০১৪ সালে ইউটিউবের জনপ্রিয় কন্টেন্ট ক্রিয়েটর Grumpy Cat যে পরিমান অর্থ আয় করেছেন তা ছিল অস্কার প্রাপ্ত অভিনেত্রী Gwneth Paltrow এর আয়ের চেয়েও বেশি।
  10. গুগল নিঃসন্দেহে অনলাইন জগতের সবচেয়ে বড় সার্চ ইঞ্জিন। কিন্ত তার পরেই অবস্থান ইউটিউবের। ইয়াহু, বিং এবং আস্ক ডট কমকে একত্রিত করলেও ইউটিউব তার চেয়েও বৃহৎ সার্চ ইঞ্জিন।
  11. প্রতি বছর এপ্রিল ফুল ডে -তে ইউটিউব এর ব্যবহাকারীদের সাথে বিভিন্নভাবে প্র্যাংক করে থাকে।
  12. প্রতি মাসে ইউটিউব ভিউয়ারসরা সর্বমোট ৬ বিলিয়ন ঘন্টা সমান ভিডিও দেখেন।
  13. প্রতিদিন প্রায় ৪ বিলিয়ন ভিডিও দেখা হয়ে থাকে ইউটিউবে।
  14. যুক্তরাষ্ট্রের পর সৌদি আরব থেকেই সবচেয়ে বেশি ভিউ আসে ইউটিউবে।
  15. ইউটিউবে সর্বাধিক সার্চ করা টিউটোরিয়াল হল, “How To Kiss”! আর দ্বিতীয় জনপ্রিয় টিউটোরিয়াল হল “How To Tie A Tie”।
  16. ইউটিউবে সবচেয়ে বেশি সার্চ করা হয় ২টি টপিকে। সেগুলো হল, Course এবং Music।
  17. ২০১০ সালে সারা বছরে সর্বমোট আপলোডকৃত ভিডিওর ব্যাপ্তিকাল ১৫০০০০ ঘন্টার পূর্ণদৈরঘ সিনেমার সমান।
  18. বিশ্বের সকল বড় বড় লিডারদের মধ্যে ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী Tony Blair প্রথম ইউটিউবে চ্যানেল খুলেছিলেন। তাঁর চ্যানেলটি খোলা হয় ২০০৭ সালে।
  19. ২০১৩ সালের এক গবেষনায় দেখা গিয়েছে, ইউটিউবের সর্বাধিক দেখা ১০০০ ভিডিওর মাঝে ৬০% ভিডিওই জার্মানিতে ব্যানড বা নিষিদ্ধ।
  20. ইউটিউবের সবচেয়ে দীর্ঘ ভিডিওর ব্যাপ্তিকাল ৫৭১ ঘন্টা ১ মিনিট ৪১ সেকেন্ড। যা ২৩ দিন ১৯ ঘন্টার সমান!
  21. ইউটিউবের প্রথম ১ বিলিয়ন ভিউ হওয়া ভিডিওটি ছিল Hello By Adele। যেটি ১ বিলিয়ন ভিউ হয়েছিল ৮৮ দিনে।
  22. ইউটিউবে আপলোডকৃত ভিডিওর মধ্যে ১দিনেই সর্বাধিক ভিউস এর রেকর্ড গড়ে Star Wars: The Force Awakens Official Teaser #2। ভিডিওটি ২৪ ঘন্টার মধ্যে ১১২ মিলিয়ন বার দেখা হয়েছিল।
  23. Justin Bieber -কে ইউটিউবের সকল কন্টেন্ট ক্রিয়েটরদের মাঝে সবচেয়ে সফল হিসেবে আখ্যায়িত করা হয়। কারণ ইউটিউবে গানের কভার আপলোড করার মধ্য দিয়েই তিনি আজকের জশ-খ্যাতি পেয়েছেন।
  24. ২০০৭ সালে থাইল্যান্ডে ইউটিউব বন্ধ ছিল টানা ৬ মাসের জন্য। যার পিছনে ছিল মাত্র ৪৪ সেকেন্ডের একটি ভিডিও।
  25. টুইটারে প্রতি মিনিটে ইউটিউব ভিডিও লিংক সংযুক্ত করে প্রায় ৪০০ টুইট পোস্ট হয়।

তথ্যসূত্রঃ Huffingtonpost এবং Live Tiles

কম খরচে ওয়েবসাইট ডিজাইন ডেভেলপমেন্ট সার্ভিস

লেখক সম্পর্কে জানুন

আব্দুল্লাহ আল মারুফ

আমি মারুফ। রংপুরে বেগম রোকেয়া বিশ্ববিদ্যালয়ে একাউন্টিং নিয়ে পড়াশুনা করছি। পড়াশুনার পাশাপাশি অনলাইন মার্কেটপ্লেসে কাজ করছি ফ্রিল্যান্স আইটি প্রফেশনাল হিসেবে। আর ভাললাগে অনলাইনে লেখালেখি করতে...

মন্তব্য দিন