বিনোদন

জানা-অজানা কিংবদন্তি আইয়ুব বাচ্চু

আইয়ুব বাচ্চু

আইয়ুব বাচ্চু কিংবা এবি! বাংলাদেশের মিউজিক জগতে যিনি একজন কিংবদন্তি। “এবি” নামেই তাঁর পরিচিতি বেশি। অসাধারন গিটার বাজানোর জন্য যিনি শুধু বাংলাদেশ নয়, গোটা ভারতীয় উপমহাদেশেই রয়েছে তাঁর জনপ্রিয়তা। আশির দশকের শ্রোতা থেকে শুরু করে বর্তমান সময়ের তরুণ প্রজন্মের হৃদয়ে জায়গা দখল করে আছেন আইয়ুব বাচ্চু

একাধারে গায়ক, লিড গিটারিস্ট, গীতিকার ও সুরকার আইয়ুব বাচ্চুর জন্ম চট্টগ্রামে ১৯৬২ সালে। আর মারা যান ২০১৮ সালের ১৮ই অক্টোবর। এবি তাঁর মিউজিক ক্যারিয়ার শুরু করেন ১৯৭৮ সালে ব্যান্ড “ফিলিংস” -এর সাথে। এরপর ১৯৮০ সালে যোগ দেন জনপ্রিয় ব্যান্ড সোলস -এর লিড গিটারিস্ট হিসেবে। এক দশক সোলসে থাকার পর ১৯৯১ সালে শুরু করেন নতুন ব্যান্ড ‘এল আর বি‘। সেখানে তিনি লিড গিটারিস্ট এবং ভোকাল হিসেবে শুরু করেন তাঁর নতুন ক্যারিয়ার।

আজকের পোস্টে জানব বাংলাদেশের কিংবদন্তি সংগীত শিল্পী আইয়ুব বাচ্চু সম্পর্কে জানা-অজানা বেশ কিছু তথ্য।

আইয়ুব বাচ্চু সম্পর্কে জানা অজানা তথ্য

  • আইয়ুব বাচ্চুর ডাক নাম ‘রবিন’।
  • তাঁর জন্মতারিখ ১৬-৮-১৯৬২ এবং জন্মস্থান চট্টগ্রাম।
  • সঙ্গীত জীবন শুরু ১৯৭৮ সালে।
  • চট্টগ্রামের ছেলে এবি’র মিউজিক ক্যারিয়ারও শুরু হয় জন্মস্থান চট্টগ্রামেই।
  • তৎকালীন জনপ্রিয় ব্যান্ড সোলসের হাত ধরে এবির পথচলা শুরু হলেও প্রকৃতপক্ষে তাঁর প্রথম ব্যান্ড “ফিলিংস”
  • তপন চৌধুরীর “মন শুধু মন ছুঁয়েছে” তুমুল জনপ্রিয় এই গানটির সুর করেছিলেন আইয়ুব বাচ্চু। এছাড়াও সুর করেছেন পপ গুরু আজম খান, কুমার বিশ্বজিৎ, নাসীম আলী খানসহ প্রমুখের গান।
  • এবির প্রথম প্রকাশ হওয়া গান “হারানো বিকেলের গল্প”
  • “রক্তগোলাপ” ছিল আইয়ুব বাচ্চুর প্রথম অ্যালবাম। যা প্রকাশিত হয় ১৯৮৬ সালে।
  • ১৯৮৮ সালে প্রকাশিত “ময়না” অ্যালবামের মধ্য দিয়েই আইয়ুব বাচ্চুর সফলতার পথ উন্মোচিত হয়।
  • ১৯৯১ সালের ৫ এপ্রিল গঠন করেন নিজের ব্যান্ড “এলআরবি”। ব্যান্ড শুরুর সময় অন্য সদস্যরা হলেন শহীদুল ইসলাম টুটুল, সাইদুল হাসান স্বপন, হাবিব আনোয়ার জয়।
  • লিজেন্ড আইয়ুব বাচ্চুর ব্যান্ড “এলআরবি” -নামের পিছনে রয়েছে অজানা তথ্য। এলআরবি হিসেবেই ব্যান্ডের প্রথম নাম আমরা জানলেও আসলে ব্যান্ডটির প্রথম নাম ছিল Yellow River Band। দেশের বাহিরের একটি কনসার্টে পারফর্ম করতে গিয়ে দেখেন ভুলবশত তাঁর ব্যান্ডের নাম L.R.B (Little River Band) লিখা হয়েছে। নামটি পছন্দ হওয়ায় এরপর তিনি ব্যান্ডের নাম “এল.আর.বি” রাখেন। ঝামেলা বাঁধে সেখানেও! জানা যায়, Little River Band নামের একটি অস্ট্রেলিয়ান ব্যান্ডও আছে। তাই ব্যান্ডের সংক্ষিপ্ত নাম এলআরবি রাখা হলেও পরিবর্তন করা হয় পুরো নামটির। পরবর্তীতে এর নামকরন করা হয় Love Runs Blind (L.R.B)।

তথ্যসূত্রঃ Official Website of LRB / Wikipedia

কম খরচে ওয়েবসাইট ডিজাইন ডেভেলপমেন্ট সার্ভিস

লেখক সম্পর্কে জানুন

আব্দুল্লাহ আল মারুফ

আমি মারুফ। রংপুরে বেগম রোকেয়া বিশ্ববিদ্যালয়ে একাউন্টিং নিয়ে পড়াশুনা করছি। পড়াশুনার পাশাপাশি অনলাইন মার্কেটপ্লেসে কাজ করছি ফ্রিল্যান্স আইটি প্রফেশনাল হিসেবে। আর ভাললাগে অনলাইনে লেখালেখি করতে...

মন্তব্য দিন