তাহসান, অপূর্ব এবং নিশো’র ‘দ্বিতীয় কৈশোর’ রিভিউ [Ditio Koishor]

অবশেষে মুক্তি পেয়েছে শিহাব শাহীনের আলোচিত ওয়েব ফিল্ম ‘দ্বিতীয় কৈশোর’। চলতি সময়ের জনপ্রিয় তিন তারকা তাহসান, নিশো এবং অপূর্বকে একই ফ্রেমে দেখা যাবে নতুন এই ওয়েব ফিল্মটিতে। ভিডিও কন্টেন্ট দেখার দেশীয় পোর্টাল বায়োস্কোপে গত রবিবার রিলিজ হয় দ্বিতীয় কৈশোর ওয়েব ফিল্মটি।

রুপায়নের আজকের লেখায় থাকছে আলোচিত ওয়েব ফিল্ম ‘দ্বিতীয় কৈশোর’ -কে নিয়ে আলোচনা। চলুন শুরু করা যাক।

এক নজরে ‘দ্বিতীয় কৈশোর’ ওয়েব ফিল্ম

ওয়েব ফিল্মঃ দ্বিতীয় কৈশোর
চিত্রনাট্য ও পরিচালনাঃ শিহাব শাহীন
অভিনয়েঃ তাহসান, আফরান নিশো, অপূর্ব, সানজিদা প্রীতি, রাইসা অর্পা, নাজিয়া হক অর্ষা, রিফাত জাহানসহ আরও বেশ কয়েকজন।
আর্টঃ জিয়াউর রহমান
চিত্রগ্রহনঃ সুমন হোসাইন
সম্পাদনাঃ আশিকুর রহমান সুজন, সোহান আহমেদ এবং জোবায়ের আবির পিয়াল
প্রযোজকঃ সানিয়াত হোসেন এবং ইরেশ জাকের
ব্যাকগ্রাউন্ড মিউজিকঃ আরাফাত মহসিন নিধি
গানঃ অগোচরে, কেউ চলে যায়…
প্রচারঃ বায়োস্কোপ লাইভ ডট কম

‘দ্বিতীয় কৈশোর’ ওয়েব ফিল্ম রিভিউ / আলোচনা [Ditio Koishor]

ওয়েব ফিল্মঃ দেশে এখন ওয়েব ফিল্মের চাহিদা চোখে পড়ার মতো। যদিও টার্মটির সাথে দর্শক এখনও খুব ভালভাবে পরিচিত না। অনেক দর্শক ওয়েব ফিল্মকে নাটক হিসেবেও দেখছেন। শিহাব শাহীনের তৈরি ‘দ্বিতীয় কৈশোর’ একটি পারফেক্ট ওয়েব ফিল্ম। তাই ওয়েব ফিল্ম সম্পর্কে আলোচনারও একটি ভাল সুযোগ। নেটফ্লিক্সের নাম আমরা অনেকেই জানি কিংবা নাম শুনেছি। সেই আদলে দেশে যাত্রা শুরু করেছে বেশ কয়েকটি দেশীয় প্লাটফর্ম। যে ওয়েব পোর্টালগুলো মূলত বানিজ্যিকভাবে মানুষকে নাটক, সিনেমা, টিভি প্রোগ্রামের মত বিভিন্ন বিনোদনমূলক কন্টেন্ট সার্ভিস দিয়ে থাকে। পাশাপাশি নিজেরাও তৈরি করছে বিভিন্ন নাটক, সিনেমা। সেরকমই একটি কাজ হল ‘দ্বিতীয় কৈশোর’। গ্রামীনফোন ব্যবহাকারীদের জন্য ডিজিটাল কন্টেন্টের প্লাটফর্ম বায়োস্কোপে রিলিজ করা হয়েছে ওয়েব ফিল্মটি। যেটি অনেক দিক থেকেই সিনেমা ধাঁচের। ব্যাপ্তিকালের দিক দিয়ে ‘দ্বিতীয় কৈশোর’ প্রায় দেড় ঘন্টা। যেটাও সিনেমার বৈশিষ্ট্যের মধ্যেই পড়ে অনেকটা। আবার বিনামূল্যেও দেখার সুযোগ নেই এই ফিল্মটি। বায়োস্কোপে নির্দিষ্ট অর্থের বিনিময়ে সাবস্ক্রিপশন নিয়ে দেখা যাবে ফিল্মটি। তাই, বৈশিষ্ট্যের দিক দিয়ে ‘দ্বিতীয় কৈশোর’ একটি পারফেক্ট ওয়েব ফিল্ম।

tahsan apurbo nisho

তিন তারকার মেলাঃ এবার আসা যাক তারকাদের বিষয়ে। রিলিজের আগেই ‘দ্বিতীয় কৈশোর’ -কে নিয়ে আলোচনার কেন্দ্রবিন্দু ছিল মূলত ‘তিন তারকা’! তাহসান, অপূর্ব, নিশো! চলতি সময়ে ছোট পর্দার জনপ্রিয় তিন তারকাকে দেখা যাবে এক ফ্রেমে। আর সেই খবরেই বাজিমাত। কারণ, তিন তারকা কেউই কারো চেয়ে কম নয়! ছোট পর্দায় তিন জনেরই আছে শক্ত অবস্থান। আর তাঁদেরকে এক পর্দায় আনার বিষয়ে রাজি করানোর বিষয়টাও মোটেও সহজ না। আর তাইতো, এমন খবরে অধীর আগ্রহেই ছিলেন দর্শকরা। শোনা গেছে, ব্যক্তিজীবনে তিনজনের মাঝেই আছে ভাল বন্ধুত্ব। এর আগে একটি নাটকে অপূর্ব আর তাহসানকে একসাথে অভিনয় করতে দেখা গেলেও। তবে নিশোর সাথে তাহসান বা অপূর্বকে কখনই এর আগে এক সাথে অভিনয় করতে দেখার সুযোগ হয়নি দর্শকদের। সব মিলিয়ে প্রিয় ৩ তারকার কম্বিনেশনটা ছিল মূল আকর্ষণ। এছাড়াও ভিন্নধর্মী একটি চরিত্রে অভিনয় করেছেন আবুল হায়াত। অন্যান্য চরিত্রগুলোতে ছিল সানজিদা প্রীতি, রাইসা অর্পা, নাজিয়া হক অর্ষা, রিফাত জাহানসহ আরও বেশ কয়েকজন। গল্পের প্রয়োজনে তিন তারকাকেই একসাথে করা হয়েছে বলে এক সাক্ষাৎকারে জানিয়েছেন পরিচালক শিহাব শাহীন।

পরিচালকঃ ইতিমধ্যেই জেনে গেছেন, ‘দ্বিতীয় কৈশোর’ ওয়েব ফিল্মটির কারিগর হিসেবে ছিলেন জনপ্রিয় নির্মাতা শিহাব শাহীন। সিনেমা কিংবা নাটক, দুই জগতেই আছে তাঁর সফলতা। তাঁর পরিচালিত সফল সিনেমা “ছুঁয়ে দিলে মন”। আবার ‘এক্স ফ্যাক্টর, ‘রমিজের আয়না’, ‘সে রাতে বৃষ্টি ছিলো’, ‘রুপকথা এখন আর হয় না’, ‘একটি পুরাতন প্রেমের গল্প’ এবং নীলপরী নীলাঞ্জনা’র মতো সাড়া জাগানো নাটকের কারিগরও তিনি। এবার সেই তালিকায় যুক্ত হল ‘দ্বিতীয় কৈশোর’। ওয়েব ফিল্মকে প্রমোট করতে চ্যালেঞ্জিং এই কাজটি বলতে গেলে সফলতার সাথেই করলেন পরিচালক হিসেবে শিহাব শাহীন। ইতিমধ্যে বেশ কিছু পরিচালকের হাত ধরে রিলিজ পেয়েছে কিছু ওয়েব ফিল্ম। তবে আমার ব্যক্তিগত অভিমতে শিহাব শাহীনের এই দ্বিতীয় কৈশোর শিরোনামের কাজটি “ওয়েব ফিল্ম” পরিচয়ে একদম যথার্থ হিসেবে ধরা যায়। ইউটিউবের মতো ফ্রি প্লাটফর্মে রিলিজ না দেওয়ায় সোশ্যাল মিডিয়াতে দেখেছি, অনেকেই জানতে পারছেন এর পেছনের কারণ। কিংবা আমার মতো ব্লগাররা হয়ত ওয়েব ফিল্মকে পরিচয় করিয়ে দেওয়ার সুযোগ পাচ্ছে লেখার মাধ্যমে। অর্থের বিনিময়ে অনলাইনে নাটক বা সিনেমা দেখার অভ্যাসটা আমাদের দেশে একদম নেই বললেই চলে। কিন্ত ভাল মানের কাজ দেখতে হলে অবশ্যই সেটাকে বানিজ্যিকভাবেই হতে হবে। অন্যথায় তা সম্ভব না। তাই নতুন এই ক্ষেত্রটিকে দর্শকদের কাছে পরিচয় করাতে প্রয়োজন ভাল মানের কাজ। আর যে কাজটি অনেকটাই সফলভাবে করেছে “দ্বিতীয় কৈশোর”। আর এর পেছনের মানুষ হিসেবে সবচেয়ে বড় ভূমিকা রেখেছেন শিহাব শাহীন। কারণ, তাঁর মত স্বনামধন্য পরিচালকের কারণেই তিন তারকাকে এক পর্দায় পেয়েছে দর্শকরা। আর গল্প এবং পরিচালনাতেও বরাবরের মতোই তাঁর দক্ষতার স্বাক্ষর রেখেছেন ফিল্মটিতে।

ditio-koishor-poster

গল্পঃ তারকা এবং পরিচালকের বিষয়ে তো অনেক আলোচনাই হলো। কিন্ত দর্শকের মূল প্রশ্ন থাকে গল্প নিয়েই। গল্পের ব্যাপারে বলতে গেলে, ফিল্মটি দেখার পর দর্শকরা পুরোপুরি ভিন্ন একটি স্বাদ পাবেন। গতানুগতিক প্রেম-ভালবাসার কমন গল্পের নাটক দেখতে দেখতে যারা অনেকটাই বিরক্ত। তাঁদের কাছে ভাল লাগবে ‘দ্বিতীয় কৈশোর’। যেহেতু গতানুগতিক সিনেমাও না, আবার নাটকও না! তাই সিনেমার আঙ্গিকে গল্প প্রত্যাশা করাটা বোধয় ঠিক হবেনা। তবে চলতি সময়ের নাটকগুলোর সাথে তুলনা করলে গল্পের দিক দিয়ে অনন্য ‘দ্বিতীয় কৈশোর’। ত্রিশ পেরোনো তিন বন্ধুর ভিন্নধর্মী সংকটের গল্প নিয়ে তৈরি হয়েছে ওয়েব ফিল্মটি। গল্পের তিন কিশোর আবির, ধ্রুব ও রিও রোজারিও। আবির চরিত্রে অভিনয় করেছে অপূর্ব। আবির প্রতিষ্ঠিত একজন ব্যবসায়ী। বয়স ৩৫ হয়ে গেছে, তবুও বিয়ে করতে তাঁর অনীহা। অন্যদিকে, ধ্রুব চরিত্রে তাহসানও চাকুরী করে প্রতিষ্ঠিত। বিবাহিত হলেও তাহসান বিয়ের ৫ বছর পরেও চায় না বাচ্চা নিতে। এ নিয়ে স্ত্রীর সাথে তৈরি হয় অন্যরকম এক সংকট। আর রিও চরিত্রে অভিনয় করেছে নিশো। রিও’র গল্পটা একটু অন্যরকম। সেও ৩৫ বছরের কোটায়। একটা কফি শপ আছে। তবুও এতো বছর পরেও যেন সে একটা চাপে থাকে ক্যারিয়ারের। নিশোর এই চরিত্রটিতে আছে আরও কিছু টুইস্ট। সব মিলিয়ে এই হলো তিন বন্ধুর একটি কম্বাইন্ড গল্প। তিনটি আলাদা চরিত্রের, আলাদা গল্পের, আলাদা সংকটকে নিয়ে সম্মিলিতভাবে আগাতে থাকে ফিল্মটি।

উল্লেখ্য যে, গল্পের প্রয়োজনে ২-৩টি অ্যাডাল্ট সিনের দেখা পাবে দর্শকরা। সত্যিই, শুরু থেকে শেষ পর্যন্ত অসাধারন গল্পের মধ্য দিয়েই গেছে ‘দ্বিতীয় কৈশোর’। সম্পূর্ণ ভিন্নধর্মী গল্পের আমেজে তৈরি ‘দ্বিতীয় কৈশোর’ কে উপভোগ করতে আপনাকে পুরো ফিল্মটি দেখতে হবেই।

গানঃ ফিল্মটিতে ছিল তিনটি গান। প্রথম সাউন্ডট্র্যাকটি মিথিলার গাওয়া ‘অগোচরে’। অন্যটি ছিল আসিফ ইকবালের লেখা ‘কেউ চলে যায়…’ গানটি। এতে সুর ও কন্ঠে ছিলেন অমিত-ইশান। আর ‘দ্বিতীয় কৈশোর’ ফিল্মের টাইটেল ট্রাকটি ছিল মারজুক রাসেলের লেখা একটি গান। সব মিলিয়ে গানগুলো ফিল্মটিতে যোগ করেছে বাড়তি মাত্রা।

‘দ্বিতীয় কৈশোর’ দেখবেন যেভাবে [Watch Ditio Koishor]

ditio-koishor-watch-now

শিহাব শাহীনের ‘দ্বিতীয় কৈশোর‘ ওয়েব ফিল্মটি রিলিজ হয়েছে ‘বায়োস্কোপ‘ ওয়েবসাইটে। বায়োস্কোপের মতো বিনোদন কন্টেন্ট ভিত্তিক সার্ভিস প্রদানকারী প্লাটফর্মগুলোর সাথে দর্শকরা এখনও সেভাবে পরিচিত নন। তবে ‘দ্বিতীয় কৈশোর’ রিলিজের পর দেখা গেছে অনেক দর্শকরাই বিষয়টি সম্পর্কে বিস্তারিত জানতে পারছেন। যা অবশ্যই ইতিবাচক। আপনি যদি ‘দ্বিতীয় কৈশোর’ ওয়েব ফিল্মটি দেখতে চান। তবে আপনার জন্য আবারো বলছি, এটি একটি বাণিজ্যিক ফিল্ম। তাই bioscopelive.com সাইটে নির্দিষ্ট অর্থের বিনিময়ে সাবস্ক্রিপশন প্যাক কিনে ফিল্মটি দেখতে হবে আপনাকে। ‘দ্বিতীয় কৈশোর’ ফিল্মটি দেখার পর একজন দর্শক হিসেবে মনে হয়েছে, টাকা খরচ করে এই ফিল্মটি দেখা সার্থক। আর তথ্যপ্রযুক্তির এই যুগে আমাদের হাতের মুঠোয় চলে আসছে সদ্য রিলিজ হওয়া যেকোন সিনেমাটিও। তবে অবৈধভাবে আপলোড করা সিনেমা/নাটক ফ্রিতে দেখার রীতি থেকে বের হয়ে আসা এখন সময়ের দাবী। এতে পরিচালকরা আমাদের জন্য ভাল মানের নাটক/সিনেমা তৈরিতে উৎসাহী হবেন। নির্দিষ্ট সাবস্ক্রিপশন ফি’র বিনিময়ে এখন বেশ কিছু ওয়েব পোর্টালে দেখা যায় অনেক ভাল মানের নাটক/সিনেমা। গ্রামীনফোনের ‘বায়োস্কোপ’ প্লাটফর্মটিতে উল্লেখিত যেকোন প্যাক কেনার মাধ্যমে আপনাকে দেখতে হবে ‘দ্বিতীয় কৈশোর’। অনলাইনে বিভিন্ন ওয়েবসাইটে ফিল্মটির ফ্রি ডাউনলোড লিংক থেকে থাকলেও সেগুলো সম্পূর্ণ বেআইনি। অনলাইনে ‘দ্বিতীয় কৈশোর’ দেখতে এখনই ক্লিক করুন http://www.bioscopelive.com/en/watch?v=bsvbG9OzO2T

2 Comments

Add a Comment
  1. Hi, I’m from India and I’m a huge fan of these three maestro – Nisho, Apurbo and Tahsan. Such an amazing web film, great story and lovely cinematography !!! Probably one of the best works of Shihab Shaheen so far. Want more good contents like “Ditio Koishor”.

    Love from Kolkata ♥️

    1. Thank you Dipan Debnath, for your comment. It’s great pleasure for me that you’re from our neighbor country. I hope, you will watch our various Bengali natok/film as well as we watch indian movies.
      Love from Bangladesh ♥️

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *