পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয় গুচ্ছ ভর্তি পরীক্ষা ২০২০-২১ | GST Admission Circular

পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয় গুচ্ছ ভর্তি পরীক্ষা ২০২০-২১

পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয় গুচ্ছ ভর্তি পরীক্ষা ২০২০-২১ এর সার্কুলার প্রকাশিত হয়েছে। সরকারি সাধারণ এবং বিজ্ঞান প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়গুলোকে নিয়ে এবারই প্রথম অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে গুচ্ছ ভর্তি পরীক্ষা। মহামান্য রাষ্ট্রপ্রতির এক অনুরোধের প্রেক্ষিতে শুরু হতে যাচ্ছে এই গুচ্ছ পদ্ধতির ভর্তি পরীক্ষা। পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়গুলোর ভিসিকে নিয়ে ইউজিসির একটি সভায় এই সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে। যেখানে ২০টি পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয় গুচ্ছ পদ্ধতিতে ভর্তি পরীক্ষায় অংশ নিতে রাজি হয়েছে। উল্লেখ্য যে, এই পদ্ধতিতে আগে থেকেই ৭টি কৃষি বিশ্ববিদ্যালয় ভর্তি পরীক্ষা নিয়ে আসছে।

নতুন এই পদ্ধতিতে ভর্তি পরীক্ষায় অংশ নিতে আবেদন প্রক্রিয়া সম্পন্ন হবে দুই ধাপে। প্রাথমিক ধাপের অনলাইন আবেদন শুরু হবে আগামী ১লা এপ্রিল। যা শেষ হবে ১৫ এপ্রিল তারিখে। এরপর যোগ্যতার ভিত্তিতে উত্তীর্ণরা চূড়ান্ত আবেদন করার সুযোগ পাবে। এবছরের ভর্তি পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে ১৯ জুন, ২৬ জুন এবং ০৩ জুলাই তারিখে। কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়গুলো আগে থেকেই এই পদ্ধতিতে ভর্তি পরীক্ষা নিয়ে থাকলেও সাধারণ এবং বিজ্ঞান প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়গুলো এবারই প্রথম গুচ্ছ পদ্ধতিতে ভর্তি পরীক্ষা নিতে যাচ্ছে। ফলে বেশিরভাগ ভর্তিচ্ছু পরীক্ষার্থীর মনে নানা প্রশ্ন। তাই রুপায়নের আজকের পোস্টে থাকছে পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয় গুচ্ছ ভর্তি পরীক্ষা ২০২০-২১ সংক্রান্ত সকল তথ্য। আপনিও যদি এবার বিশ্ববিদ্যালয় ভর্তি পরীক্ষায় অংশগ্রহনে ইচ্ছুক একজন প্রার্থী হয়ে থাকেন। তাহলে পুরো পোস্টটি মনোযোগ দিয়ে পড়ে নিন। আর জেনে নিন ২০২০-২১ শিক্ষাবর্ষে সরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তির সকল প্রয়োজনীয় তথ্য।

এক নজরে পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয় ভর্তি পরীক্ষা ২০২০-২১

প্রাথমিক আবেদনের তারিখ০১ এপ্রিল থেকে ১৫ এপ্রিল ২০২১
প্রাথমিক আবেদনের ফলাফল প্রকাশ২৩ এপ্রিল ২০২১
চূড়ান্ত আবেদনের তারিখ২৪ এপ্রিল থেকে ২০ মে ২০২১
চূড়ান্ত আবেদনের ফি৫০০ টাকা
প্রবেশপত্র ডাউনলোডের তারিখ০১ থেকে ১০ মে ২০২১

সমন্বিত/গুচ্ছ ভর্তি পরীক্ষার তারিখ | GST Admission Date

২০২০-২১ শিক্ষাবর্ষের বিশ্ববিদ্যালয়গুলোর সমন্বিত ভর্তি পরীক্ষাগুলো অনুষ্ঠিত হবে মোট ৩ দিন। বিজ্ঞান, মানবিক এবং ব্যবসা বিভাগের জন্য আলাদা আলাদা দিনে এই ভর্তি পরীক্ষাগুলো নেয়া হবে। প্রতিটি পরীক্ষা দুপুর ১২টা থেকে ১টা ৩০ মিনিট পর্যন্ত চলবে।

A ইউনিট (মানবিক বিভাগ)২১ জুন ২০২১
B ইউনিট (ব্যবসা শিক্ষা বিভাগ)২৬ জুন ২০২১
C ইউনিট (বিজ্ঞান বিভাগ)০৩ জুলাই ২০২১

গুচ্ছ ভর্তি পরীক্ষা কিভাবে হয়?

দেশের কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়গুলোতে আগে থেকে গুচ্ছ পরীক্ষার প্রচলন থাকলেও এবারই প্রথম ২০টি বিশ্ববিদ্যালয় এই পদ্ধতিতে ভর্তি পরীক্ষা নিচ্ছে। সেকারণেই বেশিরভাগ পরীক্ষার্থীর কাছে কিছুটা নতুন এই পদ্ধতি। গুচ্ছ পদ্ধতিকে সমন্বিত ভর্তি পরীক্ষা হিসেবেও বলা হয়ে থাকে। ইংরেজিতে এই পরীক্ষার নাম GST Admission। এর আগে যেকোন বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তির জন্য সেই বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি পরীক্ষা দিতে হতো। ফলে একজন বিশ্ববিদ্যালয় ভর্তিচ্ছু প্রার্থীকে সারাদেশ ভ্রমন করে পরীক্ষা দিতে হতো। যা অনেকটা ব্যয়বহুল এবং ঝামেলা সম্পূর্ণ। এব্যাপারে পরীক্ষার্থীদের ভোগান্তি কমাতে মহামান্য রাষ্ট্রপতি আব্দুল হামিদ সকল বিশ্ববিদ্যালয়ের ভিসিদের আহ্বান করেন যেন তাঁরা গুচ্ছ পদ্ধতিতে ভর্তি পরীক্ষা নেন। যার ফলে একজন পরীক্ষার্থী শুধু নিজ জেলাতে একটি পরীক্ষায় অংশ নিয়েই যেকোন বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তির যোগ্য হতে পারবে। এই পদ্ধতিকেই মূলত গুচ্ছ বা সমন্বিত ভর্তি পরীক্ষা হিসেবে বলা হচ্ছে।

ভর্তি পরীক্ষার আবেদন প্রক্রিয়া

বিশ্ববিদ্যালয় ভর্তি পরীক্ষার নিয়মের সাথে এবার পরিবর্তন এসেছে আবেদন প্রক্রিয়াতেও। মূলত দুটি ধাপে সাজানো হয়েছে এই আবেদন প্রক্রিয়া।

প্রাথমিক আবেদনের যোগ্যতা

২০১৬ থেকে ২০১৮ সালের এসএসসি/সমমান এবং ২০১৯ ও ২০২০ সালের এইচএসসি/সমমান, ডিপ্লোমা-ইন-কমার্স, বাংলাদেশ কারিগরী শিক্ষা বোর্ডের অধীনে এইচএসসি (ভোকেশনাল), A লেভেল এবং অন্যান্য সমমান পরীক্ষায় উত্তীর্ণ শিক্ষার্থীরাই কেবল ভর্তি পরীক্ষার জন্য প্রাথমিক আবেদন করতে পারবে। আবেদনকারীদের জন্য এবার থাকছে ৩টি ইউনিট। A ইউনিট (মানবিক), B ইউনিট (ব্যবসা শিক্ষা) এবং C ইউনিট (বিজ্ঞান)। ইউনিট ভিত্তিতে রয়েছে নির্দিষ্ট কিছু শর্ত।

A ইউনিট: মানবিক শাখা হতে এইচএসসি/সমমান পরীক্ষায় উত্তীর্ণ আবেদনকারীদের এসএসসি/সমমান ও এইচএসসি/সমমান উভয় পরীক্ষায় (৪র্থ বিষয়সমূহ) ন্যূনতম জিপিএ ৩.৫০ সহ সর্বমোট ৭.০০ থাকতে হবে। সাধারণ শিক্ষাবোর্ডের মানবিক শাখাসহ মিউজিক, গার্হস্থ্য অর্থনীতি এবং মাদ্রাসা বোর্ড (সাধারন, মুজাব্বিদ) মানবিক শাখা হিসেবে বিবেচিত হবে।

B ইউনিট: বাণিজ্য শাখা হতে এইচএসসি/সমমান পরীক্ষায় উত্তীর্ণ আবেদনকারীদের এসএসসি/সমমান ও এইচএসসি/সমমান উভয় পরীক্ষায় (৪র্থ বিষয়সমূহ) ন্যূনতম জিপিএ ৩.৫০ সহ সর্বমোট ৭.৫০ থাকতে হবে। সাধারণ শিক্ষাবোর্ডের বাণিজ্য শাখাসহ ডিপ্লোমা ইন বিজনেস স্টাডিস, ব্যবসায় ব্যবস্থাপনা (এইচএসসি) এবং ডিপ্লোমা ইন কমার্স বাণিজ্য শাখা হিসেবে বিবেচিত হবে।

C ইউনিট: বিজ্ঞান শাখা হতে এইচএসসি/সমমান পরীক্ষায় উত্তীর্ণ আবেদনকারীদের এসএসসি/সমমান ও এইচএসসি/সমমান উভয় পরীক্ষায় (৪র্থ বিষয়সমূহ) ন্যূনতম জিপিএ ৩.৫০ সহ সর্বমোট ৮.০০ থাকতে হবে। সাধারণ শিক্ষাবোর্ডের বিজ্ঞান শাখাসহ ভোকেশনাল (এইচএসসি) এবং মাদ্রাসা বোর্ড (বিজ্ঞান) বিজ্ঞান শাখা হিসেবে বিবেচিত হবে।

চূড়ান্ত আবেদনের যোগ্যতা এবং অন্যান্য তথ্য

প্রাথমিক আবেদনকৃত শিক্ষার্থীদের এসএসসি ও এইচএসসি পরীক্ষার ফলাফলের ভিত্তিতে মেধাক্রম অনুসারে প্রতিটি ইউনিটে চূড়ান্ত আবেদনের জন্য নির্দিষ্ট সংখ্যক আবেদনের জন্য শিক্ষার্থী নির্বাচিত হবে। মেধাক্রম প্রস্তুত পদ্ধতির বিস্তারিত জানা যাবে ভর্তি সার্কুলারে। প্রতিটি ইউনিটে সর্বোচ্চ ১ লক্ষ ৫০ হাজার শিক্ষার্থী ভর্তি পরীক্ষায় অংশ নিতে পারবে। চূড়ান্ত আবেদনের ফি ৫০০ টাকা মোবাইল ব্যাংকিং (বিকাশ, রকেট এবং নগদ) এর মাধ্যমে জমা দেয়া যাবে। উক্ত আবেদনের সময় আবেদনকারীর সুবিধাজনক ৫টি কেন্দ্র পছন্দ করতে হবে। সারাদেশে মোট ৩১টি পরীক্ষাকেন্দ্রের মাধ্যমে নেয়া হবে এবারের পরীক্ষা। বিভিন্ন মানদন্ড এবং আবেদনকারীর পছন্দের ভিত্তিতে নির্বাচন করে দেয়া হবে একটি পরীক্ষাকেন্দ্র। নির্ধারিত পরীক্ষাকেন্দ্র পরিবর্তনের সুযোগ নেই।

ভর্তি পরীক্ষার ফলাফল

প্রত্যেক পরীক্ষার্থীকে নির্ধারিত কেন্দ্রে ভর্তি পরীক্ষায় অংশ নিতে হবে। প্রতিটি ইউনিটে ১ ঘন্টা ৩০ মিনিটে ১২০ নম্বরের পরীক্ষা হবে। পরীক্ষাগুলো নির্দিষ্ট তারিখে ১২টা থেকে ১টা ৩০ মিনিট পর্যন্ত অনুষ্ঠিত হবে। পরীক্ষার বিষয়সমূহ এবং বিস্তারিত মানবন্টন জানা যাবে ভর্তি পরীক্ষার সার্কুলারে। ভর্তি পরীক্ষার ফলাফলের আপডেটের জন্য আমাদের সাথেই থাকুন।

যে ২০টি বিশ্ববিদ্যালয়ে গুচ্ছ ভর্তি পরীক্ষার মাধ্যমে ভর্তি হওয়া যাবে

সাধারণ বিশ্ববিদ্যালয় ( ৯টি)

১. জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়
২. বেগম রোকেয়া বিশ্ববিদ্যালয়, রংপুর
৩. শেখ হাসিনা বিশ্ববিদ্যালয় (নেত্রকোনা)
৪. জাতীয় কবি কাজী নজরুল ইসলাম বিশ্ববিদ্যালয়
৫. বরিশাল বিশ্ববিদ্যালয়
৬. রবীন্দ্র বিশ্ববিদ্যালয়
৭. কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয়
৮. খুলনা বিশ্ববিদ্যালয়
৯. ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়

বিজ্ঞান প্রযুক্তি বিশ্ববিদালয় (১১ টি)

১০. শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়
১১. পটুয়াখালী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়
১২. বঙ্গমাতা শেখ ফজিলাতুন্নেছা মুজিব বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়
১৩. বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ডিজিটাল বিশ্ববিদ্যালয়
১৪. রাঙামাটি বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়
১৫. বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়, গোপালগঞ্জ
১৬. পাবনা বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়
১৭. যশোর বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়
১৮. নোয়াখালী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়
১৯. মাওলানা ভাসানী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়
২০. হাজী মোহাম্মদ দানেশ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়

গুচ্ছ পদ্ধতিতে পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয় ভর্তি পরীক্ষার বিজ্ঞপ্তি

gst admission 2020-21 first step application

gst admission 2020-21 final step application

gst admission 2020-21 mark distribution

gst admission 2020-21 dates

GST Admission Circular 2020-21 PDF Download

আপনি কি পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয় গুচ্ছ ভর্তি পরীক্ষার সার্কুলারটি ডাউনলোড করতে চান? আপনার সুবিধার্থে নিচে পিডিএফ আকারে ডাউনলোড লিংক দেয়া হল:

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

+ 9 = 13